করোনাকালে ঘরে কত তাপমাত্রায় এয়ার কন্ডিশনার চালানো উচিৎ?

লাইফস্টাইল ডেস্ক
আপডেটঃ জুলাই ২২, ২০২০ | ৩:০০
লাইফস্টাইল ডেস্ক
আপডেটঃ জুলাই ২২, ২০২০ | ৩:০০
Link Copied!

একে করোনা আতঙ্কে ঘরবন্দী দশা, অন্যদিকে বেড়েই চলছে গরম। ঘর ঠাণ্ডা করতে এসি চালাচ্ছেন। এতে গরম থেকে স্বস্তি মিললেও ঘর ঠাণ্ডা করা এখন কতটা নিরাপদ জানেন কি?

তাহলে আমাদের করনীয় সম্পর্কিত কিছু প্রশ্নের উত্তর চলুন জেনে নেই-

বাড়ির এয়ার কন্ডিশনারগুলি আদর্শভাবে ২৪-৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে চালানো উচিত এবং আর্দ্রতা ৪০-৭০ শতাংশের মধ্যে হওয়া উচিত। তবে, প্রাকৃতিক বাতাস প্রবেশের ব্যবস্থা থাকা উচিৎ। বায়ু চলাচল ও নিঃসরণের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে এক্সস্টাস্ট ফ্যান থাকলে তা ছেড়ে রাখা অথবা না থাকলে জানালা ঈষৎ ফাঁকা রাখা।

বিজ্ঞাপন

এয়ার কুলার ব্যবহার করব কিভাবে?
ঠাণ্ডার জন্য অনেকে বাষ্পীভবন কুলার (মরুভূমি কুলার) ব্যবহার করে থাকেন। স্বাস্থ্য কর হাওয়া পেতে এবং ধুলাবালি দূরে রাখতে কুলারের সাথে বায়ু ফিল্টার ব্যবহার করা উচিৎ। আপনার কুলারটির বিশুদ্ধ বায়ুচলাচল নিশ্চিত করার জন্য বাইরে থেকে বাতাস ঘরে প্রবেশ করতে হবে এবং আর্দ্রতা হ্রাস করার জন্য জানালা খোলা রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ইলেকট্রিক ফ্যান ব্যবহারের ক্ষেত্রে করণীয় কি?
বৈদ্যুতিক পাখা ব্যবহারের ক্ষেত্রেও, সঠিক বায়ুচলাচল এবং নিষ্কাশনের জন্য জানালাগুলি খোলা রাখতে হবে। এক্সস্টাস্ট ফ্যান থাকলে তা ছেড়ে রাখুন।

তাহলে আমাদের করনীয় সম্পর্কিত কিছু প্রশ্নের উত্তর চলুন জেনে নেই-

বিজ্ঞাপন

ঘরে কত তাপমাত্রায় এয়ার কন্ডিশনার চালানো উচিৎ?
বাড়ির এয়ার কন্ডিশনারগুলি আদর্শভাবে ২৪-৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে চালানো উচিত এবং আর্দ্রতা ৪০-৭০ শতাংশের মধ্যে হওয়া উচিত। তবে, প্রাকৃতিক বাতাস প্রবেশের ব্যবস্থা থাকা উচিৎ। বায়ু চলাচল ও নিঃসরণের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে এক্সস্টাস্ট ফ্যান থাকলে তা ছেড়ে রাখা অথবা না থাকলে জানালা ঈষৎ ফাঁকা রাখা।

কেন্দ্রীয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা এবং কিছু সমস্যা
বিশেষজ্ঞদের মতে, উইন্ডো এয়ার কন্ডিশনারগুলি যেগুলি বাড়িতে ব্যবহৃত হয় তা ঠিক আছে, তবে কেন্দ্রীয় কুলিং ব্যবহার করার ক্ষেত্রে কিছু সমস্যা রয়েছে। এই কেন্দ্রীয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা মল, কর্পোরেট এবং সরকারী অফিস, হাসপাতাল ইত্যাদিতে ব্যবহৃত হয় এবং তা যদি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি, কাশি বা শ্বাস- প্রশ্বাসের সংস্পর্শে আসে তবে একই বিল্ডিংয়ের অন্যান্য ব্যক্তিতে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বাড়তে পারে। এজন্য, বাইরের সাথে বায়ু সঞ্চালনের ব্যবস্থা রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ।

বিশেষজ্ঞদের মতে, উইন্ডো এয়ার কন্ডিশনারগুলি যেগুলি বাড়িতে ব্যবহৃত হয় তা ঠিক আছে, তবে কেন্দ্রীয় কুলিং ব্যবহার করার ক্ষেত্রে কিছু সমস্যা রয়েছে। এই কেন্দ্রীয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা মল, কর্পোরেট এবং সরকারী অফিস, হাসপাতাল ইত্যাদিতে ব্যবহৃত হয় এবং তা যদি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি, কাশি বা শ্বাস- প্রশ্বাসের সংস্পর্শে আসে তবে একই বিল্ডিংয়ের অন্যান্য ব্যক্তিতে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বাড়তে পারে। এজন্য, বাইরের সাথে বায়ু সঞ্চালনের ব্যবস্থা রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

ট্যাগ:

শীর্ষ সংবাদ:
ঈদ স্পেশাল ট্রেন চলাচল শুরু ঈদে ট্রাফিক শৃঙ্খলা-যানজট এড়াতে ২২ দফা নির্দেশনা পুলিশের বছরে দশ হাজার বেকারকে প্রশিক্ষণ দিয়ে চাকরির ব্যবস্থা করবে আস-সুন্নাহ ফাউন্ডেশন কুয়েতে ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত অন্তত ৩৯ চাঁদপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, অটোরিকশা চালক নিহত প্রেমের বিয়ে, ইতালি যাওয়া স্ত্রী’র পরকীয়া মানতে পারেনি ইসমাইল মা-বাবাকে একসাথে হারালো ‘জমজ তিন সন্তান’ হাজীগঞ্জের সিএনজি পিকআপ সংঘর্ষে চারজন আহত জমে উঠছে মতলব উত্তরের কোরবানির পশুর হাট চাঁদপুরে ২৮ ধরণের দেশীয় ফল নিয়ে পুলিশের গ্রীষ্মকালীন উৎসব চাঁদপুরে বিক্রয় প্রতিনিধিকে অজ্ঞান করে টাকা ছিনতাই মতলব দক্ষিণ পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু ১৭ দিনের ছুটিতে যাচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রাজারগাঁও বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হাইমচরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গর্ভবতী নারী ও শাশুড়িকে পিটিয়ে রক্তাক্ত হাজীগঞ্জে বালুবাহী পিকআপ ও সিএনজি সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রীসহ তিনজন নিহত, এতিম হয়ে গেল তিন সন্তান জব্দ হওয়া হাজারো যানবাহন খোলা আকাশের নিচে, রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার ঈদের আগেই প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে উঠছে ১৮ হাজার পরিবার চাঁদপুরের পশুর হাট: আলোচনায় ফরিদগঞ্জের ১৫ লাখ টাকার ‘জায়েদ খান’ মতলবে ঈদ সামনে রেখে গরুকে খাওয়ানো হচ্ছে নিষিদ্ধ ওষুধ