ভালো কাজ করা সত্ত্বেও বদ মেজাজটাই কাল হলো শাহজাহান শিশিরের

মানিক ভৌমিক
আপডেটঃ জুলাই ২৬, ২০২০ | ২:৪৮
মানিক ভৌমিক
আপডেটঃ জুলাই ২৬, ২০২০ | ২:৪৮
Link Copied!

তিনি স্পষ্টবাদী। কথার মারপ্যাঁচ বোঝেন না। কেউ ঘুরিয়ে-পেঁচিয়ে কথা বললে তিনি রেগে যান। অনিয়ম দেখলে রেগে যান। মাঝে মধ্যে এ রাগ চরমে পৌঁছে এবং অনর্থ করে বসেন। তিনি হলেন বহিস্কৃত কচুয়া উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির।

অন্যদের তুলনায় তার রাগটা একটু বেশি। একটু অনিয়ম, একটু বিশৃঙ্খলা দেখলে তিনি মাথা গরম করে হৈচৈ শুরু করেন। যদিও এ চেয়ারে বসে এ ধরণের রাগ বেমানান। তবে তার মনটা পরিস্কার। উদ্যমী ও সৃষ্টিশীল একজন মানুষ। নতুন কিছু করতে ভালোবাসেন। গাছ ও সবুজায়ন ভালোবাসেন তিনি। পরিবেশ রক্ষায় তার মতো এত গাছের চারা আর কোনো উপজেলায় কোনো চেয়ারম্যান বিনামূল্যে বিতরণ করেছেন এরকম দেখিনি, শুনিনি।

প্লাস্টিক পরিবেশের ক্ষতি করে এজন্য তিনি ছাত্রছাত্রীদের পরিত্যক্ত প্লাস্টিকের বিনিময়ে খেলার সামগ্রী ও হারমোনিয়াম বিতরণ করেছেন। শাইখ সিরাজের আদলে তিনি ইদ আনন্দ উৎসব করে উপজেলায় ব্যাপক সারা জাগিয়েছিলেন। খালের মধ্যে বাঁধ থাকায় পানিতে মাঠের ফসল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে দেখে শাহজাহান শিশির নিজেই কোদাল নিয়ে বাঁধ কেটে ক্ষেতের ফসল রক্ষা করেছেন।

শেখ সিটি/ লাকী কূপন

শীতকালে কুয়াশার রাতে কচুয়ার উত্তরাঞ্চলের রাস্তায় প্রতিনিয়ত ডাকাতি হতো। ডাকাতরা রাস্তার পাশে ঝোপঝাড়ে লুকিয়ে থাকতো। তিনি ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীদের নিয়ে স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তার দুপাশের আগাছা ও ঝোপঝাড় পরিষ্কার করেছেন।

বিজ্ঞাপন

টিআর, কাবিখায় সচ্ছতার জন্য তিনি বন্টনতালিকা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন। এতে অনেকের বিরাগভাজনও হয়েছেন।

সালিশের নামে আমাদের সমাজে একশ্রেণির ধান্ধাবাজ দেনদরবার করে বেড়ায় এবং বহু টাকা হাতিয়ে নেয়।
সামাজিক সালিশ ও দেন-দরবারে শাহজাহান শিশির ছিলেন স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ। হিন্দু অধ্যুষিত গ্রাম বাঁচাইয়ায় ২০১৬ সালে ধর্মীয় ইস্যুতে দাঙ্গার উপক্রম হয়েছিলো। শাহজাহান শিশির দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তা নিয়ন্ত্রণ করেন।

শাহজাহান শিশিরের ভালো কাজগুলোর প্রতিদান হিসেবে জনগণ দ্বিতীয়বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন। তরুনদের মধ্যে তিনি জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।

বিজ্ঞাপন

কচুয়া আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতাদের সাথে শাহজাহান শিশিরের সমন্বয় ছিলো না, বরং বেশিরভাগ শীর্ষনেতাই শিশিরবিরোধী। তিনি দীর্ঘদিনেও এসম্পর্কের উন্নয়ন করতে পারেননি। শাহজাহান শিশিরের বহিষ্কারাদেশে আওয়ামী লীগের কোনো শীর্ষ নেতা একটা দীর্ঘশ্বাসও ফেলেনি। কচুয়া প্রেসক্লাবের সাথেও শাহজাহান শিশির সুসম্পর্ক রাখেননি। প্রেসক্লাবকে এড়িয়ে চলতেন কিংবা দূরে সরিয়ে রাখতেন। ফলে দুঃসময়ে কাছে পাননি প্রেসক্লাবকে।

আনোয়ার আলী মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ

শিরোনামে যা লিখেছি, শাহজাহান শিশিরের সবচেয়ে বড় ক্ষতি করেছে তার সমন্বয়হীনতা ও বদমেজাজ। অতিরিক্ত রাগে তিনি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলতেন এবং মানুষকে লাঞ্ছিত করতেন। বাদ যায়নি হাসপাতালের একজন সিনিয়র ডাক্তার, একজন মুক্তিযুদ্ধা, সাধারণ মানুষ তো অহরহই তার হাতে লাঞ্ছিত হতেন। তার দুর্ব্যবহারের জন্য সমস্ত ভালো অর্জনগুলো নষ্ট হয়ে গেছে।

সর্বশেষ করোনার সময়ে জনসচেতনতায় দিনরাত শাহজাহান শিশির পরিশ্রম করেছেন। বিশ্রাম না করে মানুষের সেবায় মাঠে ছিলেন তিনি। এত ভালো কাজের ফলাফল কি হলো? একদিন শাহজাহান শিশির প্রত্যন্ত গ্রামে ঝাপি বন্ধ এক চায়ের দোকানের ভিতর থেকে পানি ফুটানো চায়ের কেতলি জঙ্গলে ছুড়ে ফেলে দিয়েছেন। এরকম একটা ভিডিও তার চামচার মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছিল। ভিডিওটি দেখে আমি স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছিলাম। গরীব দোকানী এ ছোট দোকানের আয় দিয়েই বউ, ছেলে-মেয়েদের মুখে খাবার তুলে দিত। একটা লোকের রোজগারের উপকরণ এভাবে কেউ নষ্ট করতে পারে? চায়ের দোকানী কিছুই বলেনি, শুধু তাকিয়ে দেখছিল। নিরীহ দোকানী মনে মনে কী এমন কিছু বলেছিলো, সৃষ্টিকর্তা যা মঞ্জুর করেছেন।

মানিক ভৌমিক
২৬/৭/২০২০

শুকরান হাসপাতাল

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

ট্যাগ:

শীর্ষ সংবাদ:
ঈদ স্পেশাল ট্রেন চলাচল শুরু ঈদে ট্রাফিক শৃঙ্খলা-যানজট এড়াতে ২২ দফা নির্দেশনা পুলিশের বছরে দশ হাজার বেকারকে প্রশিক্ষণ দিয়ে চাকরির ব্যবস্থা করবে আস-সুন্নাহ ফাউন্ডেশন কুয়েতে ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিহত অন্তত ৩৯ চাঁদপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, অটোরিকশা চালক নিহত প্রেমের বিয়ে, ইতালি যাওয়া স্ত্রী’র পরকীয়া মানতে পারেনি ইসমাইল মা-বাবাকে একসাথে হারালো ‘জমজ তিন সন্তান’ হাজীগঞ্জের সিএনজি পিকআপ সংঘর্ষে চারজন আহত জমে উঠছে মতলব উত্তরের কোরবানির পশুর হাট চাঁদপুরে ২৮ ধরণের দেশীয় ফল নিয়ে পুলিশের গ্রীষ্মকালীন উৎসব চাঁদপুরে বিক্রয় প্রতিনিধিকে অজ্ঞান করে টাকা ছিনতাই মতলব দক্ষিণ পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু ১৭ দিনের ছুটিতে যাচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রাজারগাঁও বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হাইমচরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গর্ভবতী নারী ও শাশুড়িকে পিটিয়ে রক্তাক্ত হাজীগঞ্জে বালুবাহী পিকআপ ও সিএনজি সংঘর্ষে স্বামী-স্ত্রীসহ তিনজন নিহত, এতিম হয়ে গেল তিন সন্তান জব্দ হওয়া হাজারো যানবাহন খোলা আকাশের নিচে, রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার ঈদের আগেই প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে উঠছে ১৮ হাজার পরিবার চাঁদপুরের পশুর হাট: আলোচনায় ফরিদগঞ্জের ১৫ লাখ টাকার ‘জায়েদ খান’ মতলবে ঈদ সামনে রেখে গরুকে খাওয়ানো হচ্ছে নিষিদ্ধ ওষুধ